বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে অন্তঃস্বত্তা প্রেমিকা

26

পীরগঞ্জে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান নিয়েছে এক অন্তঃস্বত্তা প্রেমিকা। কীটনাশকের বোতল হাতে নিয়ে ‘হয় বিয়ে নয়তো আত্মহত্যা’ এ আল্টিমেটাম দিয়ে গত ৩দিন ধরে অবস্থান করছে এই তরূনী। প্রতিবেশী লোকজন উভয় পরিবারের সম্মতিতে বিয়ে দেয়ার প্রস্তুতি নিলেও প্রতারক প্রেমিক বাড়ি ছেড়ে পালিয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার চৈত্রকোল ইউনিয়নের রামচন্দ্রপুর গুচ্ছগ্রামে।

প্রেমিকার পরিবার ও এলাকাবাসী সূত্র জানায়, দানিশনগর গ্রামের মৃত আব্দুর রশিদ মিয়ার কন্যা মেহেরবানু (১৬) সংসারে অস্বচ্ছলতার কারণে কয়েক মাস ধরে ঢাকায় গার্মেন্ট শ্রমিক হিসেবে কাজ করতেন। ঢাকার একই এলাকায় প্রতিবেশী রামচন্দ্রপুর গুচ্ছগ্রামের নুরু মিয়ার পুত্র সাদেকুল ইসলামও (২৪) পাশাপাশি এক গার্মেন্টে কাজ করতো।

নিজ এলাকার সূত্র ধরে প্রথমে মেহেরবানু ও সাদেকুল ইসলামের পরিচয় ঘটে। পরিচয় থেকে প্রেম। আর প্রেম থেকে দৌহিক সম্পর্ক।

Advertisement

শুধু তাই নয়, বাইবেল এলাকায় প্রায় দু’মাস ধরে এক ভাড়া বাসায় তারা স্বামী স্ত্রী পরিচয়ে বসবাস করতো। কিন্তু বাসা মালিক বিষয়টি টের পেলে মাস খানেক পূর্বে তারা বাসা ছেড়ে গ্রামে পালিয়ে আসে। গ্রামে এসেও চুপিসারে দেখা হতো দু’জনার। সম্প্রতি ঘর বাধার স¦প্নে মেহেরবানু প্রেমিক সাদেকুলকে বিয়ের জন্য চাপ দিলে সে নানা টালবাহনা করতে থাকে।

এক পর্যায়ে গত ২৮শে ডিসেম্বর প্রেমিকের অন্যত্রে বিয়ের প্রস্তুতি চলছে এমন সংবাদে মেহেরবানু ছুটে যায় সাদেকুলের বাড়ি। জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পূর্ব মুহুর্তে হট্টোগোল এড়াতে প্রতিবেশী লোকজন তাকে শান্ত থাকার পরামর্শ দিয়ে সমস্যা সমাধান না হওয়া পর্যন্ত সাদেকুলের বাড়িতে থাকার নির্দেশ প্রদান করেন। এ ব্যাপারে মেহেরবানুর সঙ্গে কথা হলে বলেন, আমি এখন কোথায় যাব? বাবা হারা অসহায় মেয়ে আমি। ও (সাদেকুল) আমাকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে আমার সর্বোস্ব লুটে নিয়েছে। আমি এখন দেড় মাসের অন্তঃস্বত্তা। বিষয়টি এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে।

Advertisement
SHARE